সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ, আশুলিয়া

শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমোদিত, EIIN-137792

বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা

প্লে থেকে দ্বাদশ শ্রেণি

সেরা সাফল্য

এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল

গোল্ডেন এ+/এ+: ৪৬২১
এ গ্রেড: ৫২০০
বোর্ড স্ট্যান্ড : ১১ স্টার মার্কস : ৫১৫

জেএসসি পরীক্ষার ফলাফল

এ+/ট্যালেন্টপুল বৃত্তি : ৩৩৬৯
এ গ্রেড: ৩১৬৭
সাধারণ বৃত্তি: ৫৫৯

পিএসসি পরীক্ষার ফলাফল

এ+/ট্যালেন্টপুল বৃত্তি : ২৪৫৩
এ গ্রেড: ১৬১১
সাধারণ বৃত্তি : ২৮৫

অধ্যক্ষের বক্তব্য

সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের সকল প্রতিষ্ঠানকে আলাদা আলাদাভাবে ওয়েবসাইটের আওতায় আনা হচ্ছে, বিষয়টি ভাবতেই ভালো লাগছে । প্রযুক্তির এই স্বর্ণযুগে আমরাও বিষয়টিকে আরও সমৃদ্ধ করে সাফল্যের সর্বোচ্চ চূড়ায় আরোহন করতে চাই । আমি মনে করি, বর্তমান সময়ে ভালো ফলাফলের পাশাপাশি একটি প্রতিষ্ঠানকে তথ্য প্রযুক্তিতে ও সমানতালে এগিয়ে থাকতে হবে । আমাদের উদ্দেশ্য,শিক্ষার্থীরা তাদের পাঠ্যপুস্তকের বাইরেও অনেক কিছু শিখুক,যা তাদের ভবিষ্যৎ পথ চলাকে আরও মসৃণ করবে, যার চাহিদা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনেকাংশেই পুরণ হবে । সরকার যেহেতু মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে আইসিটি বিষয়টি সকলের জন্য বাধ্যতামূলক করেছেন,কাজেই আমরাও এর গুরুত্ব অনুধাবন করে শিক্ষার্থীদের ভালো কিছু দেবার চেষ্টা করছি ।আমাদের লক্ষ্য দেশ বিদেশে অনুষ্ঠিত তথ্য ও প্রযুক্তি সংক্রান্ত যে কোন প্রতিযোগিতায় আমাদের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে নিজেদের মেধাকে আরও শাণিত করে দেশ ও জাতির কল্যাণে অবদান রাখুক এবং আমাদের নিজস্ব ওয়েব সাইটকে আরও সমৃদ্ধ করুক । সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের সম্মানিত চেয়ারম্যান মহোদয়কে ধন্যবাদ জানাই এ ধরনের মহতি উদ্যোগ গ্রহন করবার জন্য।পরিশেষে মহান সৃষ্টি কর্তার নিকট প্রার্থনা করছি, তিনি যেন আমাদের এই মহতি উদ্যোগকে সাফল্যমন্ডিত করেন ।

সাধারণ তথ্যাবলি

চেয়ারম্যান: ড. শরিফুল ইসলাম রিপন পিএমজেএফ
আবাসিক-অনাবাসিক
প্লে থেকে দ্বাদশ শ্রেণি
বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা
শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমোদিত, EIIN-137792

প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে কিছু কথা

২০১০ সালের ১০ অক্টোবর মাত্র পনেরো জন শিক্ষক এবং চারশত জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে সৃষ্টি শিক্ষা পরিবারের অন্যতম অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি সেন্ট্রাল স্কুল এন্ড কলেজ,আশুলিয়ার এই শাখাটি । প্রতিষ্ঠার পর থেকেই প্রতিষ্ঠানটি বোর্ড পরীক্ষায় কৃতিত্বপূর্ণ স্থান অর্জনসহ তার সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রেখে চলেছে ।এর পেছনে রয়েছে সুশৃঙ্খলতায় আবদ্ধ একঝাঁক মেধাবী ও তরুণ শিক্ষক-শিক্ষিকার কঠোর পরিশ্রম ও ত্যাগ। বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শিক্ষা,সংস্কৃতি, ক্রীড়া ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষার্থীরা অবদান রেখে চলেছে,যা বিদ্যালয়টিকে একটি মর্যাদার আসনে বসিয়েছে ।প্রতিষ্ঠানটিতে মাধ্যমিকের পাশাপাশি উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতেও পাঠদান করা হয়, যা প্রতিষ্ঠানকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে গেছে ।সামাজিক এবং ভৌগোলিক অবস্থানজনিত কারণে অত্র এলাকাটি শিক্ষাদীক্ষায় ছিল অনুন্নত ।সৃষ্টি শিক্ষা পরিবার তার শিক্ষার মশাল হাতে নিয়ে জ্ঞানের মহান আলোকবর্তিকা জ্বালানোর মানসে যে দিন থেকে অত্র এলাকায় যাত্রা শুরু করলো সেদিন থেকে মানুষের মনে শিক্ষাক্ষেত্রে এক যুগান্তকারী পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেল। প্রতিষ্ঠানে অনাবাসিকের পাশাপাশি রয়েছে একটি সমৃদ্ধ আবাসিক ব্যবস্থাপনা ।এখানে অষ্টম শ্রেণি এবং কলেজ পর্যন্ত পাঠদানের সরকারী অনুমতি রয়েছে । অতিদ্রুতই নবম-দশম শ্রেণির অনুমোদন চলে আসবে।
আমাদের শিক্ষার্থীরা যাতে লেখা পড়ার পাশাপাশি একেকজন আদর্শ নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে পারে সে লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি ।এ ব্যাপারে আমরা অভিভাবকেরও সহযোগিতা পাচ্ছি ।আমরা মনে করি, মুখস্থবিদ্যা একজন শিক্ষার্থীর মেধাকে সংকুচিত করে ফেলে,সেকারণে হাতে কলমে শিক্ষার প্রয়োজন । আর এ বিষয়টি অত্র প্রতিষ্ঠান তার উষা লগ্ন থেকেই অনুসরন করে আসছে । আমাদের প্রতিষ্ঠানের অন্যতম বিশেষত্ব হচ্ছে, লেখাপড়ায় অমনযোগী এবং পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের প্রতি বিশেষ নজর প্রদান । সকলের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে আমরা আরও অনেক উপরে উঠে যাবো এটা আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি।

একাডেমিক পাঠদান পদ্ধতি
  • বাংলাদেশ পাঠ্যক্রম অনুসরণ করা সহ উন্নত দেশের আধুনিক ও বিজ্ঞানসম্মত শিক্ষা ব্যবস্থার মডেল অনুযায়ী পরিচালিত।
  • সৃজনশীল পদ্ধতির উপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পাঠদান করা হয়।
  • ইংরেজি, বিজ্ঞান ও গণিত বিষয়ে অতিরিক্ত ক্লাসের ব্যবস্থা রয়েছে।
  • পড়া সহজবোধ্য করতে নিয়মিত মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর এর মাধ্যমে ক্লাস নেওয়া হয়।
  • অংশগ্রহণ মূলক পদ্ধতিতে পড়া শেখানো ও আদায় করা হয়।
  • প্রযুক্তি জ্ঞান সমৃদ্ধ করতে সকল শ্রেণিতেই কম্পিউটার ক্লাস বাধ্যতামূলক।
  • শিক্ষার্থীদের জন্য থাকবে সুপরিসর পাঠাগার, কম্পিউটার ল্যাব ও অত্যাধুনিক বিজ্ঞানাগার।
  • অভিভাবকদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য রয়েছে Online Software (SMS) পদ্ধতি। যার সাহায্যে প্রতিদিনের উপস্থিতি ও পরীক্ষার ফলাফল সহ অন্যান্য কার্যক্রম অভিভাবকদের অবগত করানো হয়।
  • প্রতিদিন শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার মধ্যে ব্যস্ত থাকার পাশাপাশি প্রতি মুহূর্তে পাবে প্রতিযোগিতাপূর্ণ পরিবেশ; যা শিক্ষার্থীর মান উন্নয়নে অতীব প্রয়োজন।
  • নিয়মিত ক্লাস ও গতানুগতিক ধারার পরিবর্তে ব্যবহারিক পদ্ধতিতে আনন্দের সাথে প্রতিদিনের পড়া ক্লাসেই ভালোভাবে বুঝিয়ে বিশেষ নিয়মে তা আদায় করা হয়।
  • শিক্ষা বছরকে ৩টি সেমিষ্টারে সুবিন্যস্তভাবে ভাগ করে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা এবং বছরে ৩টি সেমিষ্টার এবং ৩টি টিউটোরিয়াল পরীক্ষা নেওয়া হয়।
  • বিষয়ভিত্তিক দুর্বল শিক্ষার্থী চিহ্নিতকরণ, দুর্বলতার কারণ নির্ণয় এবং প্রতিকারের জন্য বাস্তবমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।
  • প্রাথমিক সমাপনী, J.S.C, S.S.C, H.S.C পরীক্ষার্থীদের Extra Care এর ব্যবস্থা রয়েছে।
  • Education, Discipline এবং Morality অর্জনই আমাদের মূল লক্ষ্য।

অন্যান্য বিশেষদিক

  • জাতীয় প্রতিযোগিতা ও সেবামূলক কাজে নিয়মিত অংশগ্রহণের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তোলা হয়।
  • অঙ্কন, আবৃত্তি, বিতর্ক ও উপস্থিত বক্তৃতাসহ নিয়মিত সহ-শিক্ষাক্রমিক কার্যক্রমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নেতৃত্বের গুণাবলী অর্জন এবং মেধা বিকাশের সুযোগ করে দেয়া হয়।
  • নিয়মিত হাউজট্যুর, এস.এম.এস প্রদান ও ফোন/মোবাইলের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার বিষয়ে অভিভাবকদের অবহিত করা হয়।
  • সুশৃঙ্খল পরিবেশ, নিরাপত্তা, অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র ও ফাস্ট এইডের ব্যবস্থা রয়েছে।
  • আধুনিক শিক্ষার মান উন্নয়নে রয়েছে Teachers Students Association (TSA)।
  • শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য রয়েছে Students Council (SC)
  • শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান মনষ্ক করার লক্ষ্যে প্রতি বছর বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করা হয়।
  • নিজস্ব জেনারেটরের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক বিদ্যুৎ এর ব্যবস্থা রয়েছে।
  • শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে আধুনিক ফিল্টারের মাধ্যমে বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা।
আবাসিক ব্যবস্থা
  • আধুনিক ও নানাবিধ সুবিধা সংবলিত শিক্ষার্থীবান্ধব আবাসিকভবন।
  • প্রতি ১৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য ১ জন করে সার্বক্ষণিক অভিজ্ঞ আবাসিক শিক্ষক।
  • দক্ষ, অভিজ্ঞ আবাসিক প্রধান, আবাসিক সুপার, সহকারী আবাসিক সুপার দ্বারা আবাসিক ব্যবস্থাপনা সার্বক্ষণিক তদারকি এবং উন্নত ও মানসম্মত খাবার পরিবেশন করা হয়।
  • সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার জন্য সিসি ক্যামেরা, গার্ড, অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র, বিশুদ্ধ খাবার পানি ও ফাস্ট এইডের ব্যবস্থা রয়েছে। অভিজ্ঞ শিক্ষকবৃন্দ প্রয়োজনে প্রাতিষ্ঠানিক ক্লাসের পরও রাতে ও বন্ধের দিন আবাসিক শিক্ষার্থীদের সমস্যা সমাধানমূলক ক্লাস নিয়ে থাকেন।
  • নিয়মিতভাবে অনাবাসিক বিষয়ভিত্তিক শিক্ষকগণ আবাসিক শিক্ষার্থীদের আবাসিকে গিয়ে অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে থাকেন।
  • দৈনিক পত্রিকা, খেলার উপকরণ, টেলিভিশন (নিয়ন্ত্রিত) এবং সাপ্তাহিক ছুটির দিনে আবাসিক শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে আউটডোর গেমস, ঐতিহাসিক কোন স্থান বা পার্কে বেড়ানোর সুযোগ রয়েছে।
  • ডাক্তার দ্বারা নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা, স্বাস্থ্যসম্মত খাবার ও বিশুদ্ধ পানির সুব্যবস্থা।
  • আবাসিক শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মান উন্নয়নে রয়েছে Residence Students Council (RC)।
  • অভিভাবক সমাবেশ করে শিক্ষার্থী-শিক্ষক-অভিভাবকদের সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে আবাসিকে সকল সমস্যা সমাধানের ব্যবস্থা নেয়া হয়।
  • আবাসিক শিক্ষকের/শ্রেণি পরিচালকের মোবাইল ফোনে অভিভাববকবৃন্দ ফোন করে আবাসিক শিক্ষার্থীদের খোঁজ খবর নেয়ার সুযোগ রয়েছে।

যোগাযোগ

বাইপাইল, বগাবাড়ী, আশুলিয়া রোড, সাভার, ঢাকা
 ০২ ৭৭৮৯০৮৩
 ০১৭১২ ৫৭০৬৭৪
 ০১৭১২ ২৭৪২৬৯
sca@sristy.edu.bd